Sunday, April 10, 2016

বিশ্বজিতের মাথায় মিলোভান তত্ত্ব

অভিষেক সেনগুপ্ত

নীল আবিরে আকাশ ছেয়ে যাবে রবি সন্ধেয়। বিদেশি ফুটবলের মতো শোনা যাবে থিমসংয়ের কোরাস। থাকবে স্লোগান। পোস্টার। ঘনঘন ফাটবে স্মোকবম্ব!

‘ওয়েস্টব্লক ব্লু’র নাম শুনেছেন?

দং হিউন দো। যাঁর দিকে আজ তাকিয়ে টিম--- অভিষেক সেনগুপ্ত 

Thursday, February 11, 2016

র‍্যান্টির মুখে মেসি ও রোনাল্দো

অভিষেক সেনগুপ্ত

অন্ধকার থেকে আলোয় ফিরে র‍্যান্টি মার্টিন্সের মুখে এলএম টেন ও সিআর সেভেন!

এত দিন গোল না পাওয়ায় প্রবল সমালোচনা হয়েছে তাঁকে নিয়ে। লাজং এফসির বিরুদ্ধে হ্যাটট্রিকের পর দিন সেই র‍্যান্টি একান্ত সাক্ষাৎকারে বলে দিলেন, ‘খারাপ দিন কার জীবনে আসে না। মেসি, রোনাল্দোদের দিকে তাকান, ওরাও ফর্ম হারায়। তফাত শুধু একটা, ওদের কখনও সমালোচনার মুখে পড়তে হয় না। আমার ক্ষেত্রে সেটা হয়।’


আই লিগে যিনি দুরন্ত, আইএসএলে সুযোগ পেলেন না কেন? র‍্যান্টি শোনালেন আক্ষেপের গল্প। ‘পারফরম্যান্স নয়, আইএসএলে যদি খেলতে হয়, আপনার চমৎকার যোগাযোগ দরকার। যেটা আমার নেই।’

Thursday, February 4, 2016

ফুরিয়ে যাইনি, বললেন পেন

অভিষেক সেনগুপ্ত

কিড স্ট্রিটে এমএলএ হোস্টেলের সামনে উদ্বিগ্ন মুখে দাঁড়িয়ে ছোট্ট চেহারার এক বিদেশি। সামনে দিয়ে পেরিয়ে যাচ্ছে একের পর এক ট্যাক্সি।

কোথায় যাবেন আপনি? পথচলতি এক জনের প্রশ্ন শুনে মুখ তুলে তাকালেন। ততক্ষণে ভদ্রলোক ওই বিদেশিকে বলতে শুরু করে দিয়েছেন, ‘আপনার খেলা আমি অনেক দেখেছি। আমিও আপনার ফ্যান।’ যে বিদেশির মুখে ফুটে উঠল লাজুক হাসি, তিনি পেন ওর্জি। বছর তিনেক আগে এই শহরের সন্তোষপুরই ছিল তাঁর ঠিকানা।

Friday, January 15, 2016

আমি তো লেজেন্ড, আর একটু সম্মান কি প্রাপ্য নয় আমার, বললেন র‍্যান্টি

অভিষেক সেনগুপ্ত

বহু দূর থেকে ভেসে আসছে ধিক্কার মেশানো কিছু কথা, ‘পারবেন, ভারতীয় ফুটবলে আর একটা র‍্যান্টি মার্টিন্স কখনও খুঁজে বের করতে?’
মাস খানেক আগেও ওই গলায় ছিল যন্ত্রণা। বিষাদ। তাঁর চার দিকে তখন উড়ে বেড়াচ্ছে নানা কথা। ক্লাব হয়তো রিলিজ করে দেবে। চোট লুকিয়ে খেলছেন। তিনি এখন শুধুই অতীতের ছায়া!

Friday, January 8, 2016

কর্নেলকে কেউ বিরক্ত করবেন না

অভিষেক সেনগুপ্ত

ঘন কুয়াশায় তখন আবছা সব কিছু। মাঠে জনা তিরিশের মগ্ন দৌড়। গ্যালারির স্বপ্নলাগা কিছু চোখ। এই আছে, এই নেই!

Sunday, January 3, 2016

মেহরাজ-নবিরা এখন ক্লাবের খোঁজে

অভিষেক সেনগুপ্ত

কেউ এ বারের আইএসএলে হয়েছেন সেরা রাইটব্যাক। কেউ ক্রমশ হারাচ্ছেন সোনালি সময়!

বছর খানেক আগেও মেহরাজউদ্দিন ওয়াডু, রহিম নবিরা স্টার ছিলেন ভারতীয় ফুটবলে। সেই তাঁরাই এখন বাতিলের খাতায়। আইএসএলের পর দু’জনের বসে রয়েছেন বাড়িতে।

"Meherajuddin Wadoo" "Sports Thought by Abhishek Sengupta

Monday, December 28, 2015

দুই প্রধানের সালতামামি

অভিষেক সেনগুপ্ত

বছরের শেষ সপ্তাহ মানে, ফেলে আসা মুহূর্তগুলো আরও এক বার ফিরে দেখা। পাওয়ার তৃপ্তি, না পাওয়ার আক্ষেপ নিয়ে কত হিসেব। সিনেমা থেকে রাজনীতি, খেলার জগত থেকে আমজীবন--- লাভক্ষতির খাতায় এই সময় জায়গা পাচ্ছে সবই।

ময়দানি খোলাখাতায় দুই প্রধানকে নিয়েই কত আলো-আঁধারি। কত হাসি-কান্নার গল্প। বছর শেষের ঠিক আগে সেই সব সোনালি মুহূর্ত ফিরে দেখা যাক।